মোদিবিরোধী সহিংসতা: বিএনপি নেত্রী নিপুণ রায় রিমান্ডে, চট্টগ্রামে এক নেতা গ্রেপ্তার

কামরান রেজা চৌধুরী
ঢাকা
2021-03-29
Share
মোদিবিরোধী সহিংসতা: বিএনপি নেত্রী নিপুণ রায় রিমান্ডে, চট্টগ্রামে এক নেতা গ্রেপ্তার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতাল চলাকালে নারায়ণগঞ্জে পুলিশের সাথে সংগঠনটির কর্মীদের সংঘর্ষ। ২৮ মার্চ ২০২১।
[বেনারনিউজ]

হেফাজতে ইসলামের ডাকে গত ২৬ মার্চ শুরু হওয়া মোদিবিরোধী বিক্ষোভ ও সহিংসতায় ইন্ধন দেয়ার অভিযোগে ঢাকায় গ্রেপ্তারের পর বিএনপি নেত্রী নিপুণ রায় চৌধুরীকে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। 

এদিকে ঢাকার বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ এবং এর আশেপাশের এলাকায় সংঘটিত সহিংসতার দায়ে অজ্ঞাত কমপক্ষে ৫০০ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে বলে বেনারকে জানান পল্টন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু বকর সিদ্দিক।

এ ছাড়া চট্টগ্রামে পুলিশের সাথে সংঘর্ষের ঘটনায় মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা. শাহাদত হোসেনকেও গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরকে কেন্দ্র করে হেফাজতে ইসলামের সঙ্গে পুলিশ ও সরকারি দলের কর্মীদের সংঘর্ষে চট্টগ্রাম ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১৪ জনের প্রাণহানি হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের উপ মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) আনোয়ার হোসেন।

সোমবার বেনারকে তিনি জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১০ জন এবং চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে চার জন মারা গেছেন। তবে নিহতদের নাম পরিচয় এখনও নিশ্চিত করা যায়নি জানিয়ে বলেন, “আমরা নিহতদের পরিচয় শনাক্ত করার কাজ চালিয়ে যাচ্ছি।” 

এদিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কতজন মারা গেছেন সেব্যাপারে জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে বলে সোমবার বেনারকে জানান জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান।

তিনি বলেন, “যেসব মানুষ মারা গেছেন তাঁদের লাশ হাসপাতালে নেই। হয়তো স্বজনেরা বা দলের কর্মীরা নিয়ে গেছেন।”

বিক্ষোভের সময় হেফাজতের কর্মীরা সরকারি ও বেসরকারি বিভিন্ন কার্যালয় ছাড়াও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদরে একটি কালী মন্দিরে আক্রমণ চালিয়েছে বলে জানান পুলিশ সুপার। 

ডিআইজি আনোয়ার হোসেন বলেন, “আমি আজ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় সংঘর্ষ হওয়া মোট ৩৬টি স্থান ঘুরে দেখেছি। প্রতিটি স্থানে সহিংস ঘটনার জন্য পৃথক মামলা হবে। এ পর্যন্ত তিনটি মামলা হয়েছে। আরও মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলমান।” 

তিনি বলেন, “সরকারি সম্পত্তি যেমন রেলওয়ের সম্পদ, পৌরসভার সম্পদ, ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁ জাদুঘরের সম্পদ, ভূমি অফিসের সম্পদসহ বেসরকারি সম্পদ ধ্বংসের দায়ে মামলা হবে।” 

“হেফাজতের সাথে কোনো জঙ্গি সংগঠন যোগ হয়ে ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে কি না তা পরীক্ষা করে দেখার জন্য অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) সহায়তা নেওয়া হচ্ছে,” জানিয়ে ডিআইজি বলেন, “কিছু কিছু জায়গায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা অস্বাভাবিক মনে হয়েছে।”

“যেমন আমরা সন্দেহ করছি ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা অডিটোরিয়ামের অগ্নিকাণ্ডে গান পাউডার ব্যবহার করা হতে পারে। হয়তো হেফাজতের সাথে জঙ্গি সংগঠনের সদস্যরা যোগ দিয়ে এই তাণ্ডব চালিয়েছে,” বলেন ডিআইজি আনোয়ার। 

শুক্রবার হেফাজতের বিক্ষোভ

আগামী শুক্রবার সারা দেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হবে বলে সোমবার বেনারকে জানান হেফাজতে ইসলামের সাংগঠনিক সম্পাদক সালাহউদ্দিন নানুপুরি।

তিনি বলেন, “আমরা নিহতদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে সারা দেশে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছি।” 

বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনে অংশ নিতে ২৬ মার্চ দুদিনের সফরে ঢাকায় আসেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

২৫ মার্চ থেকেই তাঁর এই সফরের বিরোধিতা শুরু করে হেফাজতে ইসলামসহ বিভিন্ন ইসলামী দল ও কয়েকটি বাম সংগঠন।

২৬ মার্চ ঢাকার বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে জুম্মার নামাজের পর সহিংসতায় জড়িয়ে পড়ে হেফাজত, পুলিশ ও আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা।

চট্টগ্রামের হাটহাজারী থানায় হেফাজত কর্মীরা হামলা চালালে চারজন প্রাণ হারান। একইদিন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মারা যান আরেকজন। পরদিন ২৭ মার্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্যাপক সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে হেফাজত কর্মীরা এবং প্রাণহানি ঘটে পাঁচজনের। ২৮ মার্চও সহিংসতা চলে জেলায়। মারা যান কমপক্ষে চারজন। 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া তিনদিনে সহিংসতায় প্রশাসনের বিরুদ্ধে ‘নিষ্ক্রিয়তার’ অভিযোগ করেছে জেলা আওয়ামী লীগ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সাংসদ র. আ. ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী সোমবার বেনারকে বলেন, “ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জেলা আওয়ামী লীগ এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে যে গত কয়েকদিনে সহিংসতায় প্রশাসন নিষ্ক্রিয় ছিল। তাঁরা কেন নিষ্ক্রিয় ছিলেন জানি না। আমি আজকে সংবাদ সম্মেলন করে দলের এই সিদ্ধান্ত জানিয়েছি।”

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, বিএনপি এই সহিংসতায় অংশ নিয়েছে। 

বিএনপির সংশ্লিষ্টতা

শনিবার রাজধানীর জনপথ ও মালিবাগে বাসে আগুন দিতে উস্কানি দেয়ার দায়ে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরীর মেয়ে নিপুণ রায় চৌধুরীকে তাঁর রায়েরবাজারের বাসা থেকে রোববার গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

বাসে আগুন দেয়ার জন্য বিএনপির এক নেতাকে নির্দেশ দেয়ার দায়ে তাঁকে আটক করা হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে। 

আটকের পরদিন সোমবার নিপুণ রায়কে আদালতে সোপর্দ করা হলে তাঁর জামিন আবেদন বাতিল করে তিন দিনের পুলিশি রিমান্ড মঞ্জুর করে আদালত।

ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশের মিডিয়া শাখার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইফতেখারুল ইসলাম সোমবার বেনারকে বলেন, “ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফরকে কেন্দ্র করে সংঘটিত সহিংসতার জন্য ঢাকায় মোট চারটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।”

তবে মামলার আসামির সংখ্যা সম্পর্কে কিছু জানাননি তিনি।

এদিকে সোমবার বিকালে চট্টগ্রাম মহানগরীর কাজীর দেউড়ি এবং নগর বিএনপি কার্যালয় নাসিমন ভবন এলাকায় পুলিশ ও বিএনপি কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

এই ঘটনায় পুলিশসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

দলীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এই বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে চট্টগ্রাম বিএনপি। 

এই সংঘর্ষে বিএনপি নেতা ডা. শাহাদত হোসেনসহ মোট ১৬ জনকে আটক করা হয়েছে বলে বেনারকে জানান চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটান পুলিশের উপকমিশনার মেহেদি হাসান।

তিনি বলেন, “বিএনপি নেতা ডা. শাহাদতসহ অন্যান্য বিএনপি নেতাকর্মীরা পুলিশের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। তারা পুলিশকে আক্রমণ করেছে, বিস্ফোরক ব্যবহার করেছে এবং অগ্নিসংযোগ করেছে।” 

“প্রতিটি অপরাধের জন্য ভিন্ন ভিন্ন মামলা হবে। মঙ্গলবার ডা. শাহাদতসহ সকলকে আদালতে হাজির করা হবে,” বলেন মেহেদি হাসান।

মন্তব্য (0)

সব মন্তব্য দেখুন.

মন্তব্য করুন

নিচের ঘরে আপনার মন্তব্য লিখুন। মন্তব্য করার সাথে সাথে তা প্রকাশ হয় না। একজন মডারেটর অনুমোদন দেবার পর মন্তব্য প্রকাশিত হয়। বেনারনিউজের নীতিমালা অনুসারে প্রয়োজানে মন্তব্য সম্পাদনা হতে পারে। প্রকাশিত কোনো মতামতের জন্য বেনারনিউজ দায়ী নয়। অন্যের মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হোন এবং বিষয়বস্তুর সাথে প্রাসঙ্গিক থাকুন।

পুর্ণাঙ্গ আকারে দেখুন