টানা তৃতীয়বার ক্ষমতা নিশ্চিত করল আওয়ামী লীগ

জেসমিন পাপড়ি ও কামরান রেজা চৌধুরী
ঢাকা
2018-12-30
Share
181220_BD_Electoin_result_1000.jpg নির্বাচনের দিন সকালে ঢাকায় ভোট দেবার পর বিজয়সূচক চিহ্ন দেখাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাঁর পাশে মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ (বাম থেকে প্রথম) ও বোন শেখ রেহানা। ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮।
[এএফপি]

বিপুল জয় নিশ্চিত করল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট। একই সাথে একটানা তিনবারসহ চতুর্থ মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন শেখ হাসিনা।

রোববার দিবাগত রাত সোয়া একটা পর্যন্ত নির্বাচন কমিশন ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করেছে। ২৯৯টি আসনের মধ্যে ২৮১টি আসনের চূড়ান্ত বেসরকারি ফল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ পেয়েছে ২৫৩টি আসন, জাতীয় পার্টি পেয়েছে ১৮টি, ঐক্যফ্রন্ট ৬টি এবং স্বতন্ত্রসহ অন্যান্যরা পেয়েছে চারটি আসন।

ফলাফলের প্রবণতা বিশ্লেষণ করে দেখা যাচ্ছে, আসন্ন জাতীয় সংসদে বিরোধী দল থাকছে জাতীয় পার্টি।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বগুড়া–৬ আসনে বিজয়ী হয়েছেন। এ ছাড়া বগুড়া–৪ আসনে মোশাররফ হোসেন এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ–৩ আসনে আমিনুল ইসলাম বিজয়ী হয়েছেন।

অসুস্থতার কারণে প্রচারে না গেলেও মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে রংপুরে নিজের আসনটিতে জয়ী হয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ।

ঢাকায় নির্বাচন কমিশনে জাতীয় সংসদ নির্বচন ২০১৮ এর ফলাফল ঘোষণা করছেন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন। ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮।
ঢাকায় নির্বাচন কমিশনে জাতীয় সংসদ নির্বচন ২০১৮ এর ফলাফল ঘোষণা করছেন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন। ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮।
[কামরান রেজা চৌধুরী/বেনারনিউজ]
ঢাকায় নির্বাচন ভবনে স্থাপিত সংসদ নির্বাচনের ফলাফল সংগ্রহ ও পরিবেশন কেন্দ্র থেকে প্রথম পূর্ণাঙ্গ ফল ঘোষণা হয়েছে গোপালগঞ্জ-৩ আসনের। গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া ও কোটালীপাড়া উপজেলা নিয়ে গঠিত এই আসনে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই আসনে ৯৩ শতাংশ ভোটার ভোট দিয়েছেন বলে ইসি হিসাব দিয়েছে।

রোববার রাত সোয়া ৮টার দিকে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন এই ফলাফল ঘোষণা করেন। এটিই ছিল প্রথম কোনো আসনের পূর্ণাঙ্গ ফল। গোপালগঞ্জ-৩ আসনে ধানের শীষের প্রার্থী ছিলেন এস এম জিলানী। তার ভোট সংখ্যা ১২৩টি।

রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ৩০০টি সংসদীয় আসনের মধ্যে ২৯৯টি আসনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এবারের নির্বাচনে নিবন্ধিত সব রাজনৈতিক দল অংশ নেয়। মোট অংশ নেওয়া দলের সংখ্যা ৩৯টি।

ইতিমধ্যে ড. কামালের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ভোটের ফলাফল প্রত্যাখ্যান করে পুনঃ নির্বাচনের দাবি করেছে।

মন্তব্য করুন

নীচের ফর্মে আপনার মন্তব্য যোগ করে টেক্সট লিখুন। একজন মডারেটর মন্তব্য সমূহ এপ্রুভ করে থাকেন এবং সঠিক সংবাদর নীতিমালা অনুসারে এডিট করে থাকেন। সঙ্গে সঙ্গে মন্তব্য প্রকাশ হয় না, প্রকাশিত কোনো মতামতের জন্য সঠিক সংবাদ দায়ী নয়। অন্যের মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হোন এবং বিষয় বস্তুর প্রতি আবদ্ধ থাকুন।

পুর্ণাঙ্গ আকারে দেখুন