করোনাভাইরাস: বিপুল আগ্রহ ও বিশৃঙ্খলার মধ্যে চলছে গণটিকা কার্যক্রম

কামরান রেজা চৌধুরী
ঢাকা
2021-08-09
Share
করোনাভাইরাস: বিপুল আগ্রহ ও বিশৃঙ্খলার মধ্যে চলছে গণটিকা কার্যক্রম রাজশাহী টিচার্স ট্রেনিং কলেজ টিকা কেন্দ্রে করোনাভাইরাসের টিকা নিতে আসা মানুষের ভিড়। ৯ আগস্ট ২০২১।
[বেনারনিউজ]

সাধারণ মানুষের বিপুল আগ্রহের পাশাপাশি বিশৃঙ্খলা ও হট্টগোলের মধ্যেই চলছে করোনাভাইরাসের গণটিকা কার্যক্রম, সোমবার ছিল এর তৃতীয় দিন। 

করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন টিকা কেন্দ্রগুলোতে সাধারণ মানুষের ভিড় ক্রমাগত বাড়ছে, কোনো কোনো কেন্দ্রে সক্ষমতার তুলনায় দ্বিগুণ বা তিন গুণ মানুষ জড়ো হওয়ায় পরিস্থিতি সামাল দেওয়া প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়েছে। এই পরিস্থিতিতে টিকা না পাওয়ার অভিযোগ করেছেন অনেকেই। 

গণটিকা কার্যক্রম চলাকালে অন্তত পাঁচটি ঘটনা গণমাধ্যমে প্রকাশ হওয়ার পর তা সমালোচনা ও ক্ষোভ সৃষ্টি করেছে। রাজবাড়ি জেলায় এক নারীকে একই দিনে দুই ডোজ টিকা দেয়া হয়েছে। আবার রাজশাহীর একজন সাংসদসহ কয়েকজন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি নিজেরা করোনাভাইরাসের টিকা পুশ করে বিতর্ক সৃষ্টি করেছেন। 

এই প্রেক্ষাপটে মঙ্গলবার শেষ হচ্ছে চলমান লকডাউন। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ইতোমধ্যে বুধবার থেকে গণপরিবহনসহ সব কিছু উন্মুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছে। যদিও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সোমবার বলেছেন, মানুষের জীবন ও জীবিকার স্বার্থে সরকার লকডাউন শিথিল করলেও পরিস্থিতি বিবেচনায় আবারও কঠোর লকডাউন দেয়া হতে পারে। 

সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের জ্যেষ্ঠ বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. এ এস এম আলমগীর বেনারকে বলেন, “ছোটখাটো দু–একটি সমস্যা ছাড়া মোটামুটি ভালোভাবেই গণটিকাদান কার্যক্রম চলছে। এই কার্যক্রম দেশজুড়ে মানুষের মধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।” 

তিনি বলেন, ৮ আগস্ট পর্যন্ত আমরা প্রায় এক কোটি ৮৫ লাখ মানুষকে টিকা দিতে পেরেছি। এর মধ্যে শনিবার ও রোববার দুই দিনে ৩৮ লাখ মানুষকে টিকা দেয়া হয়েছে। 

একজনকে দুই ডোজ টিকা!

শনিবার রাজবাড়ি জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার পাটকিয়াবাড়ি দাখিল মাদরাসা টিকা কেন্দ্রে স্থানীয় কৃষকলীগ নেতা নাহিদুল হক স্বপনের স্ত্রী ইসমত আরাকে (৩১) একই সাথে দুই ডোজ টিকা দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলার সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইব্রাহিম টিটন। 

তিনি বেনারকে বলেন, “উনি যে ঘরে ছিলেন, সেই ঘরে বেশ কিছু মানুষ একসাথে টিকা নিতে ঢুকে পড়ে। ঘরের মধ্যে দুটো জায়গা ছিল। যাঁরা টিকা নিতে আসেন তাঁরা এক জায়গায় বসেন এবং যাঁরা টিকা নেন তাঁরা আরেক পাশে বসেন।” 

ডা. টিটন বলেন, “তিনি টিকা নেয়ার পর ওই আসন থেকে না উঠে সেখানেই বসেছিলেন। এর মধ্যে আরেক স্বাস্থ্যকর্মী তাড়াতাড়ি করতে গিয়ে তাঁকে আবার টিকা দিয়ে ফেলেন। ওনাকে দুই ডোজ সিনোফার্মের টিকা দেয়া হয়েছে।” 

তিনি বলেন, “আমরা শনিবার থেকে রোববার পর্যন্ত তাঁকে পর্যবেক্ষণে রেখে বাসায় চলে যেতে বলেছি। তিনি এখন ভালো আছেন।” 

ওই নারীর স্বামী নাহিদুল হক স্বপন বেনারকে জানান, “শনিবার টিকা কেন্দ্রের ওই কক্ষে ব্যাপক ভিড় ছিল। আমার স্ত্রী টিকা নিয়ে টিকার স্থানে হাত দিয়ে মাসাজ করছিল। এরই মধ্যে আরেকজন এসে কোনো কিছু জিজ্ঞেস না করে একই হাতে আরেকটি টিকা দিয়ে ফেলেন।”

তিনি বলেন, “আমার স্ত্রী এখন পর্যন্ত সমস্যা হয়নি। সে স্বাভাবিক আছে।” 

রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের সাবেক প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডা. মোশতাক হোসেন বেনারকে বলেন, “একজন ব্যক্তির একইসাথে দুই ডোজ টিকা নেয়ার ওপর কোনও গবেষণা আমরা পাইনি। বিশ্বের কোথাও আগে এমনটি ঘটেছি কি না, সেটিও বলা মুশকিল।” 

তিনি বলেন, “একই সাথে দুই ডোজ টিকা নিলে কোনো সমস্যা হবে কি না তা জানতে ওনাকে দীর্ঘদিন পর্যবেক্ষণে রাখতে হবে এবং কোনো  সমস্যা হলে বিষয়টি পর্যালোচনা ও গবেষণা করে দেখতে হবে।” 

RJ_01-MP-cropped-1000.jpg
রাজশাহীর বাগমারায় এক ব্যক্তকে নিজ হাতে টিকা পুশ করেছেন স্থানীয় সাংসদ এনামুল হক (বামে)। ৭ আগস্ট ২০২১। [বেনারনিউজ]

জনপ্রতিনিধি টিকা পুশ করলেন

গত শনিবার নিজ আসন রাজশাহীর বাগমারায় এক বৃদ্ধকে নিজ হাতে টিকা পুশ করেছেন সাংসদ এনামুল হক। তিনি টিকা পুশ করছেন এমন একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। 

রাজশাহী জেলার সিভিল সার্জন ডাঃ মো. কাইয়ুম তালুকদার সোমবার বেনারকে বলেন, “যখন টিকা দেয়া হয় তখন আমি সেখানে ছিলাম না। আমাদের কর্মীরা হয়তো না বুঝে ওনাকে (সাংসদ) টিকা পুশ করতে দিয়েছেন। আমি মনে করি, এটা ঠিক হয়নি।” 

তিনি বলেন, “টিকা দিতে প্রশিক্ষিত কর্মী দরকার। যাকে টিকা দেওয়া হয়েছে তাঁকে আমরা পর্যবেক্ষণে রেখেছি। তার কোনো সমস্যা হয়নি।”

টেলিফোন করে ও মেসেজ পাঠিয়ে এই বিষয়ে সাংসদ এনামুল হকের মন্তব্য জানতে চাওয়া হলেও এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত কোনো জবাব পাওয়া যায়নি। তবে এর আগে সমালোচনার মুখে একাধিক সংবাদমাধ্যমে স্থানীয় ওই সাংসদ বলেন, “টিকা দিতে কী এমবিবিএস পাস করা লাগবে?”  

ঘরে বসে টিকা নিলেন দুজন

চট্টগ্রামের খুলশী এলাকায় মো. হাসান ও মোবারক আলী নামের দুইজন ঘরে বসে টিকা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ছবি পোস্ট করেছেন। এরপর রোববার রাতে অভিযান চালিয়ে ওই দুইজনকে আটক করে খুলশী থানা পুলিশ। বিষয়টি বেনারকে নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের এডিসি আবু বক্কর সিদ্দিক। 

তিনি বেনারকে বলেন, “আমরা তাঁদের বিরুদ্ধে টিকা চুরি ও প্রতারণার অভিযোগ এনেছি। তাঁরা কীভাবে, কার সহায়তায় বাসায় বসে টিকা নিলেন সেটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।” 

টিকা কেন্দ্রে ভিড়, হইচই

ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন টিকা কেন্দ্রগুলোতে উপচে পড়া ভিড় লক্ষ করা গেছে। অনেকেই সকাল থেকে লাইনে অপেক্ষা করেও টিকা পাননি। 

দেশের কিছু স্থানে ঘটেছে মারামারির ঘটনা। ঢাকার পল্লবীতে অবস্থিত সূর্যের হাসি চিহ্নিত ক্লিনিক টিকাদান কেন্দ্রে গত কয়েকদিন ধরে টিকা নিতে আসা মানুষের ভিড় বেড়েছে। সোমবার টিকার দাবিতে চলছে সেখানে ব্যাপক হইচই হয়েছে।

পল্লবী এলাকার বাসিন্দা আনোয়ার হোসেন বেনারকে বলেন, “আমি প্রতিদিনই টিকা কেন্দ্রে যাই। শনিবার, রোববার ও সোমবার টিকাকেন্দ্রে গিয়ে সেখানে হইহই দেখেছি। প্রতিদিনই মানুষের ভিড় বাড়ছে।” 

ওই কেন্দ্র থেকে টিকার কার্ড হাতে ফিরে যাচ্ছিলেন মো. মোস্তফা। তিনি বেনারকে বলেন, “আমরা শুনলাম কেন্দ্রে গেলেই টিকা পাওয়া যাবে। কেন্দ্রে এসে দেখি আমার মতো শত শত মানুষ অপেক্ষা করছে। আমাদের টিকা না দিয়ে চলে যেতে বলা হয়েছে।”

মারামারি হট্টগোলের কথা স্বীকার করে ওই টিকা কেন্দ্রের প্রধান ডা. শামসুন নাহার সোমবার বেনারকে বলেন, “যারা টিকা পাবেন তাঁদের এসএমএস পাঠানো হয়। কিন্তু মানুষ বুঝতে চায় না। কেন্দ্রে এসে এসএমএস ছাড়াই টিকা নেয়ার দাবি তোলে। আর বোঝাতে গেলে চিৎকার ও ঝগড়া শুরু করে।”

তিনি বলেন, “আমরা প্রতিদিন এই কেন্দ্রে তিনশ মানুষকে টিকা নেয়ার জন্য মোবাইলে খুদেবার্তা  পাঠাই। কিন্তু মানুষ আসে তার চেয়ে অনেক বেশি।”

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক সোমবার সাংবাদিকদের বলেছেন, টিকাদান কর্মসূচি সফল হবে এবং আগামী ১৫ আগস্টের মধ্যে আরও ৫৪ লাখ টিকা বাংলাদেশে আসবে। 

বাংলাদেশকে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা

করোনাভাইরাস মোকাবেলায় বাংলাদেশকে নতুন করে এক কোটি ১৪ লাখ মার্কিন ডলার সহযোগিতা দেবে যুক্তরাষ্ট্র। সোমবার ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ইউএসএআইডি’র মাধ্যমে এই সহায়তা দেয়া হবে।

মহামারি শুরুর পর থেকে বাংলাদেশকে এখন পর্যন্ত প্রায় ৯৬ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি সহায়তা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র সরকার। 

সোমবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, দেশে গত একদিনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২৪৫ জন। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ২২ হাজার ৮৯৭ জনের।

এ ছাড়া ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১১ হাজার ৪৬৩ জন। এখন পর্যন্ত দেশে মোট শনাক্তের সংখ্যা ১৩ লাখ ৬৫ হাজার ১৫৮।

মন্তব্য করুন

নীচের ফর্মে আপনার মন্তব্য যোগ করে টেক্সট লিখুন। একজন মডারেটর মন্তব্য সমূহ এপ্রুভ করে থাকেন এবং সঠিক সংবাদর নীতিমালা অনুসারে এডিট করে থাকেন। সঙ্গে সঙ্গে মন্তব্য প্রকাশ হয় না, প্রকাশিত কোনো মতামতের জন্য সঠিক সংবাদ দায়ী নয়। অন্যের মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হোন এবং বিষয় বস্তুর প্রতি আবদ্ধ থাকুন।

পুর্ণাঙ্গ আকারে দেখুন