Follow us

মানবপাচারের দায়ে যুক্তরাষ্ট্রে এক বাংলাদেশি দোষী সাব্যস্ত

বেনারনিউজ স্টাফ
ওয়াশিংটন ডিসি
2019-08-27
ই-মেইল করুন
মন্তব্য করুন
Share
যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকোর মধ্যবর্তী রিও গ্রান্ডি নদীর তীরে পাহারা দিচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের একজন সীমান্তরক্ষী। এই নদীপথেই মেক্সিকো থেকে অবৈধভাবে বাংলাদেশিদের যুক্তরাষ্ট্রে পাচার করতেন মোক্তার হোসেন। ২৮ মার্চ ২০১৩।
যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকোর মধ্যবর্তী রিও গ্রান্ডি নদীর তীরে পাহারা দিচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের একজন সীমান্তরক্ষী। এই নদীপথেই মেক্সিকো থেকে অবৈধভাবে বাংলাদেশিদের যুক্তরাষ্ট্রে পাচার করতেন মোক্তার হোসেন। ২৮ মার্চ ২০১৩।
[রয়টার্স]

মানবপাচারের দায়ে এক বাংলাদেশিকে মঙ্গলবার দোষী সাব্যস্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস রাজ্যের আদালত।

মোক্তার হোসেন (৩১) নামের এই বাংলাদেশি মেক্সিকো থেকো টেক্সাস সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে বাংলাদেশিদের যুক্তরাষ্ট্রে পাচারের সাথে যুক্ত ছিলেন বলে মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে জানায় দেশটির ডিপার্টমেন্ট অব জাস্টিস।

এতে বলা হয়, মোক্তার ২০১৭ সালের মার্চ থেকে ২০১৮ সালের আগস্ট পর্যন্ত অর্থের বিনিময়ে বাংলাদেশিদের যুক্তরাষ্ট্রে পাচারের কথা স্বীকার করেছেন।

মোক্তার মেক্সিকোর মন্টেরির বাসিন্দা ছিলেন। তিনি সেখান থেকে কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি অভিবাসীদের যুক্তরাষ্ট্রে পাঠানোর আগে সেখানে এনে জড়ো করতেন বলেও জানানো হয় বিবৃতিতে।

এতে বলা হয়, মোক্তার অভিবাসীদের পরিবহনের জন্য গাড়ির চালকদের অর্থ পরিশোধ করা এবং কীভাবে তাঁদের রিও গ্রান্ডি নদী পার করে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করানো হবে তারও নির্দেশনা দিতেন।

মোক্তারকে টেক্সাসের সাউদার্ন ডিস্ট্রিক্ট জাজ ডিয়ানা সালডানার আদালত দোষী হিসেবে সাব্যস্ত করে। তবে তাঁর কারাদণ্ডের মেয়াদ এখনো ঘোষণা করা হয়নি। যুক্তরাষ্ট্রের নিয়ম অনুযায়ী কোনো অপরাধে কাউকে দোষী সাব্যস্ত করা হলে পরবর্তী সময়ে দণ্ডের মেয়াদ ঘোষণা করা হয়।

মোক্তারকে ২০১৮ সালের ২৯ নভেম্বর মেক্সিকো থেকে যুক্তরাষ্ট্র অবতরণের পর টেক্সাসের জর্জ বুশ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। জিজ্ঞাসাবাদে মোক্তার মোট ১৪ জন বাংলাদেশিকে মেক্সিকো সীমান্ত দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে পাচারের কথা স্বীকার করেন বলে সে সময় এক বিবৃতিতে জানায় ডিপার্টমেন্ট অব জাস্টিস।

পুর্ণাঙ্গ আকারে দেখুন