মহামারিতে ঈদ: বিধিনিষেধ অমান্য করে গ্রামে ফিরছে মানুষ, চলছে কেনাকাটা

বেনার স্টাফ
2021.05.10
ঢাকা
Share on WhatsApp
Share on WhatsApp
SS01 returning home by truck-S-01.jpg

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে দূরপাল্লার বাস বন্ধ থাকলেও গ্রামে স্বজনদের সাথে ঈদ করতে মালবাহী ট্রাকে করে শহর ছাড়ছে কয়েকটি পরিবার। ছবিটি মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকা থেকে তোলা। ৯ মে ২০২১। [সাবরিনা ইয়াসমীন/বেনারনিউজ]

SS02 Ferighat-M-02.jpg

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ঢাকা থেকে বাস, ট্রেন ও লঞ্চ বন্ধ থাকলেও ঈদের ছুটিতে গ্রামে ফেরার জন্য মুন্সীগঞ্জের মাওয়া ঘাটে ফেরিতে মানুষের ঢল। ৮ মে ২০২১। [বেনারনিউজ]

SS05 Bashundhara-F-05.jpg

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আশঙ্কা উপেক্ষা করে ঈদ কেনাকাটার জন্য ঢাকার একটি অভিজাত শপিং মলে ক্রেতাদের ভিড়। ১০ মে ২০২১। [ফোকাস বাংলা]

SS06 Eid shopping-S-06.jpg

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আশঙ্কা উপেক্ষা করে ঢাকার চাঁদনি চক এলাকার মূল সড়কে ফুটপাতের দোকানগুলোকে ঘিরে নিম্নবিত্ত মানুষের ঈদ কেনাকাটা। ৯ মে ২০২১। [সাবরিনা ইয়াসমীন/বেনারনিউজ]

SS08 Old dhaka-Iftar-M-08.JPG

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে লকডাউনের মাঝেও পুরান ঢাকার সাহেববাজার এলাকায় জমজমাট ইফতার বাজার। ৭ মে ২০২১। [বেনারনিউজ]

SS10 Corona-M-10.JPG

চলতি সপ্তায় গত মার্চের তুলনায় বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কিছুটা কমে আসলেও এখনো প্রতিদিন আক্রান্ত হচ্ছেন দেড় হাজারের বেশি মানুষ। শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হতে এসেছেন একজন করোনাভাইরাস রোগী। ৯ মে ২০২১। [বেনারনিউজ]

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে চলছে কঠোর বিধিনিষেধ। ঢাকা থেকে দূরপাল্লার সব ধরনের যানবাহন বন্ধ থাকলেও গ্রামে স্বজনদের সাথে ঈদ করতে যে কোনো উপায়ে শহর ছেড়ে যাচ্ছে মানুষ। চলছে শেষ মুহূর্তের ঈদ কেনাকাটা।

মার্চের তুলনায় দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কিছুটা কমে আসলেও এখনো দৈনিক আক্রান্ত হচ্ছেন প্রায় দেড় হাজার মানুষ।

করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে এটি বাংলাদেশের দ্বিতীয় ঈদ। সংক্রমণ এড়াতে গত বছরের ঈদেও ছিল বিভিন্ন রকমের বিধিনিষেধ। 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, এ পর্যন্ত বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন সাত লাখ ৭৫ হাজারের বেশি, মৃত্যু হয়েছে প্রায় ১২ হাজার মানুষের।

মন্তব্য করুন

নীচের ফর্মে আপনার মন্তব্য যোগ করে টেক্সট লিখুন। একজন মডারেটর মন্তব্য সমূহ এপ্রুভ করে থাকেন এবং সঠিক সংবাদর নীতিমালা অনুসারে এডিট করে থাকেন। সঙ্গে সঙ্গে মন্তব্য প্রকাশ হয় না, প্রকাশিত কোনো মতামতের জন্য সঠিক সংবাদ দায়ী নয়। অন্যের মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হোন এবং বিষয় বস্তুর প্রতি আবদ্ধ থাকুন।