নেপালঃ ভুমিকম্প বিধ্বস্ত একটি জাতির চিত্র


2015.04.28
Share on WhatsApp
Share on WhatsApp
150427-NP-quake-slideshow-1.jpg

একজন উদ্ধারকারী(ডানে)ইউনেস্কো ঘোষিত বিশ্বের ঐতিহ্যবাহী স্থান হিসেবে পরিচিত দারবার স্কোয়ার থেকে ভুমিকম্পে চাপাপড়া মানুষদের বের করে আনছে। ২৫ এপ্রিল,২০১৫

150427-NP-quake-slideshow-2.jpg

এভারেস্ট আরোহীদের বেইজ ক্যাম্পেও মরণ আঘাত হানে ভয়াবহ ভুমিকম্প। ২৫ এপ্রিল,২০১৫

150427-NP-quake-slideshow-3.jpg

ভুমিকম্পে বিধ্বস্ত একটি দালানের পাশে বসে আছে এক নেপালী নারী। ২৬ এপ্রিল’২০১৫

150427-NP-quake-slideshow-4.jpg

কাঠমান্ডুতে ভুমিকম্পে আটকা পড়া জীবিত একজনকে (মাঝে-ডানদিকে) সেইসঙ্গে মৃত একজনকে টেনে বের করছে উদ্ধার কর্মিরা।২৬ এপ্রিল,২০১৫

150427-NP-quake-slideshow-5.jpg

কাঠমান্ডুতে ভুমিকম্প-আক্রান্ত মৃতদের পুড়িয়ে গণ-সৎকার করা হচ্ছে। ২৬ এপ্রিল,২০১৫

150427-NP-quake-slideshow-6.jpg

কাঠমান্ডুতে গণ-সৎকার অনুষ্ঠানে আত্নীয়-স্বজনদের মৃত্যুতে নেপালিরা শোক প্রকাশ করছে। ২৬এপ্রিল,২০১৫

150427-NP-quake-slideshow-7.jpg

কাঠমান্ডুর বালাজুতে উদ্ধার চলাকালে স্থানীয় অধিবাসী গয়া রাম প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করছেন যখন পুলিশ তার ১৪ বছরের কন্যা প্রাসামসাহের মরদেহ নিয়ে যাছিলো। ২৭ এপ্রিল,২০১৫

150427-NP-quake-slideshow-8.jpg

চীনের হুনান প্রদেশের হেংইয়াং-এ নানহুয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে নেপালি ও চীনা ছাত্ররা একত্রিত হয়ে নেপালের জন্য প্রার্থনা করছে।

কাঠমান্ডু থেকে ৫০ মাইল দূরে লামজুঙ্গে গত ২৫ এপ্রিল ৭.৮ মাত্রার ভুমিকম্প আঘাত হানে নেপালে। মঙ্গলবার পর্যন্ত মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫,০৫৭ জনে। তথ্য নেপাল সরকারের।

মঙ্গলবার থেকে নেপালে ৩ দিনের জাতীয় শোক ঘোষণা করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী সুশীল কৈরালা রয়টারকে জানিয়েছেন, উদ্ধার তৎপরতা ভুমিকম্পের কেন্দ্রে প্রত্যন্ত অঞ্চলে পৌছলে এই মৃত্যুর সংখ্যা ১০ হাজার পর্যন্ত দাঁড়াবে।

ভারত এবং বাংলাদেশেও ভুমিকম্পের আঘাত বেশকিছু মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে এবং হাজারের ওপরে আহত হয়েছে।

গত ৮১ বছরের মধ্যে এই প্রাকৃতিক দূর্যোগ ভয়াবহ মাত্রায় নেমে আসে, এতে নেপালের অনেক সাংস্কৃতিক স্থাপত্য ভেঙ্গে পড়ে, তারমধ্যে ইউনেস্কোর বিশ্বের ঐতিহ্যবাহী স্থান হিসেবে ঘোষিত দারবার স্কোয়ারও রয়েছে।

মন্তব্য করুন

নীচের ফর্মে আপনার মন্তব্য যোগ করে টেক্সট লিখুন। একজন মডারেটর মন্তব্য সমূহ এপ্রুভ করে থাকেন এবং সঠিক সংবাদর নীতিমালা অনুসারে এডিট করে থাকেন। সঙ্গে সঙ্গে মন্তব্য প্রকাশ হয় না, প্রকাশিত কোনো মতামতের জন্য সঠিক সংবাদ দায়ী নয়। অন্যের মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হোন এবং বিষয় বস্তুর প্রতি আবদ্ধ থাকুন।